আজ : মঙ্গলবার, ৪ঠা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৮ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, ১০ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী, রাত ১০:২০,

কুমিল্লা-৯ আসন জাতীয় পার্টি থেকে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশি আবদুল খালেক মজুমদার

শাহ নুরুল আলম:

আগামি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুমিল্লা-৯ লাকসাম-মনোহরগঞ্জ সংসদীয় আসনে জাতীয় পার্টি (এরশাদ) থেকে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশি কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা জাপা সাংগঠনিক সম্পাদক, লাকসাম উপজেলা জাপা সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবদুল খালেক মজুমদার দুলাল। গতকাল বিকালে নিজ বাসভবনে দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় কুমিল্লা-৯ লাকসাম-মনোহরগঞ্জ আসনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন করার এই ঘোষণা দেন। এ সময় তিনি সকলের নিকট দোয়া কামনা করেন।

ব্যক্তিগত জবিনে- ১৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৬২ ইং কুমিল্লার লাকসাম পৌরশহরের ৫নং ওয়ার্ডের উঃ পশ্চিমগাঁও গ্রামে এক মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। পিতা ছিলেন লাকসাম দৌলতগন্জ বাজারের বিশিষ্ট ব্যাবসায়ি মরহুম মোঃ ইসমাইল মজুমদার, মাতা-মরহুমা হাজেরা খাতুন চৌধুরানী, ৫ ভাই, ৩ বোনের মধ্যে অধ্যাপক মোঃ আবদুল খালেক মজুমদার দুলাল সবার বড়, তিনি ১৯৭৭ সালে লাকসাম পশ্চিমগাঁও নবাব ফয়জুন্নেছা ও বদরুন্নেছা যুক্ত উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মেট্রিক পাস করেন, ১৯৭৯ সালে লাকসাম নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি কলেজ থেকে এইচ,এস,সি পাস করেন, ১৯৮৩ সনে চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সুনামের সহিত গ্রাজুয়েশন ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৮৪-৮৫ শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম,এস,এস, ( রাষ্ট্র বিঃ) ডিগ্রি লাভ করেন। একই শিক্ষাবর্ষে ঢাকা ধানমন্ডি আইন কলেজ ২ বছর পড়াশুনা করেন। ছাত্র রাজনীতির সোনালী ফসল খালেক দুলাল। অধ্যাপক আবদুল খালেক মজুমদার দুলাল স্কুলে পড়াকালিন সময়ে ছাত্র রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন তিনি-১৯৮০ সালে ন.ফ সরকারি কলেজ শাখা জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সভাপতি নির্বাচিত হন। ১৯৮৩ সালে নতুন বাংলা ছাত্রসমাজের লাকসাম উপজেলা কমিটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতির দায়িত্বকালীন সময়ে সংগঠনকে শক্তিশালী করেন। ১৯৮৪ সনে এরশাদের জাতীয় ছাত্রসমাজের লাকসাম উপজেলা সভাপতি নির্বাচিত হন। তখন থেকে খালেক মজুমদার দুলাল হু.মু এরশাদের জাতীয় পাটির রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। তিনি ধানমন্ডি ল’কলেজ জাতীয়ছাত্র সমাজের আহবায়ক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন দায়িত্বে ছিলেন জাতীয় পাটির চেয়ারম্যান হুসেইন মোঃএরশাদ কারারুদ্ধ হওয়ার পর সারাদেশে জাতীয় পাটির নেতা-কর্মীরা গ্রেফতার ও নির্যাতনের শিকার হয়ে যখন আতœগোপনে চলে যান তখন অধ্যাপক আবদুল খালেক মজুমদার দুলাল তিনি বৃহক্তর লাকসামে এরশাদের মুক্তি দাবী করে রাজপথে মিছিল বের করেন। তিনি এরশাদ মুক্তি পরিষদ কমিটি গঠন করেন এবং সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।
এ ছাড়াও ব্যক্তিগত জীবনে খালেক দুলাল ৩ সন্তানের গর্বিত পিতা বড় মেয়ে আফজানা আফরোজ মজুমদার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এল,এল, বি (অর্নাস) ও এলএলএম ড্রিগি অর্জন করেন। দ্বিতীয় মেয়ে ইসরাত জাহান মজুমদার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যলয় থেকে কেমিস্টিতে অর্নাস ও মাস্টাস ড্রিগি অর্জন করেন। একমাত্র ছেলে মুহাম্মদ জুবায়ের খালেক মজুমদার কুমিল্লা জিলা স্কুল থেকে এসএসসিতে গোল্ডেন প্লাস অর্জন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অজগর দিয়ে শরীর ম্যাসাজ!

Share চেহারা সুন্দর রাখতে আমরা কত কিছুই না করি! ত্বককে আরাম দিতে মাসে এক বার হলেও স্পা, নানা রকম উপাদেয় দিয়ে স্বাস্থ্যকর ম্যাসাজ করে থাকি। কখনো কি শুনেছেন, একটা অাস্ত অজগর দিয়ে শরীর ম্যাসাজ করার কথা? ঠিক ...

অনাথ, অসহায়ের শাসনকর্তা হতে চাই: ইমরান

Share ভোটগণনায় ইমরানের ক্ষমতায় আসা প্রায় নিশ্চিত। শেষ পর্যন্ত ১৩৭-এর ম্যাজিক ফিগার ছুঁতে না পারলেও বিলাবল জারদারির পিপিপি-র সঙ্গে জোটের রাস্তাও প্রায় পাকা। ফলে পাক প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে বসা এখন শুধুই সময়ের অপেক্ষা বলেই মনে করছেন ...