আজ : শনিবার, ১লা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, ৭ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী, দুপুর ১:৫০,

তুচ্ছ ঘটনায় এক ইউপি চেয়ারম্যানের ভাগ্নের হাতুড়ির আঘাতে আহত ২

কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলায় এক চাচা ও ভাতিজাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে উপজেলার বলুহর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল মতিনের ভাগ্নে শরিফুল ইসলাম। স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে কোটচাঁদপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

আহত ব্যক্তিরা হলেন, ইউনিয়নের ফুলবাড়িয়া গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে কবির (৩৩) ও একই গ্রামের সিরাজের ছেলে উজ্জল (২২)। আহতরা সম্পর্কে চাচা ভাতিজা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত তিন দিন আগে স্থানীয় সমাজ কল্যাণ বাজারে এক দোকানে সাইকেল রাখাকে কেন্দ্র করে উজ্জল ও চেয়ারম্যানের ভাগ্নে শরিফুলের মধ্যে হাতাহাতি হয়। পরে উভয়ের মাঝে মীমাংসা হয়ে যায়। কিন্তু চেয়ারম্যানের উসকানিতে ভাগ্নে শরিফুল আবার মারার জন্য উজ্জলকে খুঁজতে থাকে।

ভয় পেয়ে ছেলে উজ্জলের পক্ষে তার পিতা সিরাজুল চেয়ারম্যানের ভাগ্নের কাছে ক্ষমা চান। পরে চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে স্থায়ী মীমাংসার জন্য সোমবার রাত সাড়ে ৯ টার সময় সমাজ কল্যাণ বাজারে স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার রবিউল ইসলামের আমন্ত্রণে এলাকার লোকজন উপস্থিত হন।

এদিকে বিচার কাজ শুরু হওয়ার আগেই চেয়ারম্যানের ভাই আব্দুর রাজ্জাক ও ভাগ্নে শরিফুল ইসলাম হাতুড়ি দিয়ে উজ্জল ও কবিরকে পিটায়ে আহত করে। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে কোটচাঁদপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

কোটচাঁদপুর থানার ওসি বিপ্লব কুমার সাহা জানান, এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অজগর দিয়ে শরীর ম্যাসাজ!

Share চেহারা সুন্দর রাখতে আমরা কত কিছুই না করি! ত্বককে আরাম দিতে মাসে এক বার হলেও স্পা, নানা রকম উপাদেয় দিয়ে স্বাস্থ্যকর ম্যাসাজ করে থাকি। কখনো কি শুনেছেন, একটা অাস্ত অজগর দিয়ে শরীর ম্যাসাজ করার কথা? ঠিক ...

অনাথ, অসহায়ের শাসনকর্তা হতে চাই: ইমরান

Share ভোটগণনায় ইমরানের ক্ষমতায় আসা প্রায় নিশ্চিত। শেষ পর্যন্ত ১৩৭-এর ম্যাজিক ফিগার ছুঁতে না পারলেও বিলাবল জারদারির পিপিপি-র সঙ্গে জোটের রাস্তাও প্রায় পাকা। ফলে পাক প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে বসা এখন শুধুই সময়ের অপেক্ষা বলেই মনে করছেন ...