আজ : মঙ্গলবার, ২রা শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুলাই, ২০১৮ ইং, ৩রা জিলক্বদ, ১৪৩৯ হিজরী, দুপুর ২:০২,

আগে মেধার লড়াই, তারপর কোটা- মোহাম্মদ আলাউদ্দিন

About The Author

মোহাম্মদ আলাউদ্দিন

এদেশে বর্তমান সময়ে একটা ভালো চাকরি মানে সোনার হরিণ। তবে যাদের মামা-খালু আছে, স্বভাবই তাদের চাকরি নিয়ে তেমন চিন্তা করতে হয় না। অন্যদিকে যারা কোনো না কোনো কোটার আওতাভুক্ত তারাও চাকরির ব্যাপারে অনেকটা নিশ্চিত। সামান্য একটু মেধা আর একটা কোটা, ব্যস হয়ে গেলো, চাকরি আর ঠেকায় কে? অথচ যারা সত্যিকারের খুব মেধাবী, তাদের যত চিন্তা। ভালো কোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভালো বিষয়ে পড়াশোনা করলেও ভালো কোনো চাকরি হবে কিনা তা নিয়ে সব সময় প্রকৃত মেধাবীদের চিন্তায় থাকতে হয়।

মুক্তিযোদ্ধা কোটা- ৩০%, নারী কোটা- ১০%, জেলা কোটা- ৫%, প্রতিবন্ধী কোটা- ৫% এবং উপজাতি কোটা- ৫%। বাকি থাকলো মাত্র ৪৫%। এই ৪৫% হচ্ছে মেধাবীদের তথাকথিত ভরসা। তথাকথিত বলার কারন হচ্ছে- এখানে অলিখিত আরেকটি কোটা আছে। সেটা হলো- লবিং কোটা। মামা কিংবা খালুর সুবাদে যার লবিং জোর যত বেশি, সে চাকরি প্রাপ্তির যোগ্যতায় ততবেশি উপয্ক্তু। অনেক েেত্র আগেই ঠিক করা থাকে, কাকে কাকে চাকরি দেয়া হবে। শুধু লোক দেখানো মৌখিক পরীা হয় মাত্র।

এমনিতেই চাকরির সংকট তার উপর আবার এতসব ঘটনা মেধাবীদের দুশ্চিন্তায় নতুন মাত্রা যোগ করছে। তাই এসবের মাঝে হারিয়ে যাওয়ার আতঙ্কে মেধাবীরা। তবে এটাও সত্যি কোটাভুক্তদের মধ্যে অনেকেই মেধাবী থাকতে পারে। কিন্তু সে সংখ্যা খুব বেশি হবে না বলে আমার বিশ্বাস। কোটা ভুক্তদের প্রয়োজনে আরও অনেক সুযোগ দেয়া যেতে পারে তবে সেটা অন্য কোনো উপায়ে। অবশ্যই কাউকে বঞ্চিত করে নয়। একজন মেধাবীকে  টপকিয়ে আরেকজন অপোকৃত কম মেধাবী (অধিকাংশ ক্ষেত্রে) কেন এগিয়ে থাকবে? এ কেমন ব্যবস্থাপনা? কোটাভুক্তদের এমন কোনো সুযোগ দেয়া হোক যাতে সরাসরী অন্য কেউ বঞ্চিত না হয়। কোটাভুক্তদেরকে প্রয়োজনে নির্দিষ্ট পরিমানের মাসিক ভাতা দেয়া যেতে পারে অথবা সবার সঙ্গে সমভাবে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে চাকরি প্রাপ্তির পর তাদের বেতন অন্যদের চেয়ে কিছু বা অনেক বেশি দেয়া যেতে পারে। তাহলে অতন্ত মেধার অবমূল্যায়ন হবে না। এছাড়া মেধাবীরাও আর কোটা আতঙ্কে থাকবে না।

আমরা যদি সমধিকারে বিশ্বাসী হই- তাহলে প্রশ্ন হলো- এই কোটা ব্যবস্থা কি সমধিকারের আওতায় পড়ে। তাই আমার মতে আগে মেধার লড়াই, তারপর কোটাভিত্তিক সুবিধা প্রদান করা হোক।

লেখকঃ মোহাম্মদ আলাউদ্দিন
সাংবাদিক, লেখক ও সংগঠক 
সম্পাদক ও প্রকাশক- সোনালী দেশ ডটকম
মোবাইলঃ- ০১৯১১৫৩৮০৭৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

এসএসসিতে পাসের হার ৭৭.৭৭%

Share চলতি বছরের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। এতে ১০ শিক্ষা বোর্ডে গড়ে পাসের হার ৭৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ। আর জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ১০ হাজার ৬২৯ জন। রবিবার ...

লোটাস কামালের দুর্গে বিএনপির দুই ভূঁইয়ার দ্বন্দ্ব!

Share নাঙ্গলকোট উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১৬টি ইউনিয়ন, নবগঠিত লালমাই উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ও কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার ছয়টি ইউনিয়ন নিয়ে কুমিল্লা-১০ আসন। আয়তন ও জনসংখ্যার দিক থেকে দেশের অন্যতম বড় আসন এটি। আসনের প্রতিটি ...