আজ : বৃহস্পতিবার, ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, ৫ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী, সকাল ৮:৫০,

বাপ্পার সুরে হৈমন্তীর ‘দেয়াল কাহিনী’

সোনালী দেশ.কম বিনোদন:

কৈশোরেই প্রথম গানের অ্যালবাম ‘ডাকপিয়ন’ প্রকাশিত হয় তার। সেই থেকে গানের সাথেই পথ চলছেন হৈমন্তী। এখন পর্যন্ত ছয়টি একক অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছে তার। অ্যালবামের পাশাপাশি পাশপাশি দেশের জনপ্রিয় বেশ কয়েকজন শিল্পীর সাথে দ্বৈত গানেও কণ্ঠ দিয়েছেন এ শিল্পী।

ভক্তদের জন্য এবার আরও একটি একক অ্যালবাম নিয়ে হাজির হচ্ছেন তিনি। ‘দেয়াল কাহিনী’ শিরোনামের অ্যালবামটিতে গান রয়েছে মোট ৬টি। গানগুলো হলো- ‘দেয়াল কাহিনী’, ‘রঙিলা’, ‘বর্ষা’, ‘ভাঙ্গামন’, ‘সাত সমুদ্দুর’ ও ‘তুই বিহনে’।

সবগুলো গানের সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন বাপ্পা মজুমদার। গানগুলো লিখেছেন স্বপ্নীল, আপন আহসান এবং রানা। অ্যালবামটি প্রকাশ করছে ‘ধ্রুব মিউজিক স্টেশন’ (ডিএমএস)।

অ্যালবামটি প্রসঙ্গে হৈমন্তী বলেন, “গানই আমার আরাধনা, গানই আমার সাধনা। পথ চলতে গিয়ে সবার দোয়া আর সংগীতাঙ্গনের সবার সহযোগিতা চাই। একজন শুদ্ধ সংগীতশিল্পী হিসেবেই নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। অনেক যত্ন ও সময় নিয়ে এই অ্যালবামটি করেছি। গানগুলো যদি সবার ভালোলাগে সেটাই আমার বড় অর্জন।”

বাপ্পা মজুমদার বলেন, “গানের ব্যাপারে হৈমন্তী আমার মতই সবসময় ভীষণ চুজি। তাই এই অ্যালবামটি করার সময় আমদের দু’জনকেই অনেক চিন্তা ভাবনা করতে হয়েছে। ও বরাবরই ভালো গায়। এই অ্যালবামেও তার স্বাক্ষর রেখেছে। আশা করছি গানগুলো সবার ভালো লাগবে।”

আগামী সোমবার ধ্রুব মিউজিক স্টেশনের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ পাবে ‘দেয়াল কাহিনী’। পাশাপাশি অ্যালবামের সবগুলো গান শুনতে পাওয়া যাবে ডিএমএস’র ওয়েব সাইট, জিপি মিউজিক, রবি ইয়ন্ডার মিউজিক ও বাংলালিংক ভাইবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অজগর দিয়ে শরীর ম্যাসাজ!

Share চেহারা সুন্দর রাখতে আমরা কত কিছুই না করি! ত্বককে আরাম দিতে মাসে এক বার হলেও স্পা, নানা রকম উপাদেয় দিয়ে স্বাস্থ্যকর ম্যাসাজ করে থাকি। কখনো কি শুনেছেন, একটা অাস্ত অজগর দিয়ে শরীর ম্যাসাজ করার কথা? ঠিক ...

অনাথ, অসহায়ের শাসনকর্তা হতে চাই: ইমরান

Share ভোটগণনায় ইমরানের ক্ষমতায় আসা প্রায় নিশ্চিত। শেষ পর্যন্ত ১৩৭-এর ম্যাজিক ফিগার ছুঁতে না পারলেও বিলাবল জারদারির পিপিপি-র সঙ্গে জোটের রাস্তাও প্রায় পাকা। ফলে পাক প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে বসা এখন শুধুই সময়ের অপেক্ষা বলেই মনে করছেন ...