আজ : রবিবার, ২রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, ৮ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী, বিকাল ৩:১৬,

গুলি ছুড়ে উল্লাসের ব্যাখ্যা দিলেন মেয়র

বিয়ের অনুষ্ঠানে শর্টগানের গুলি ছুড়ে উল্লাস প্রকাশের ঘটনায় জেলা প্রশাসকের কারণ দর্শানোর নেটিশের জবাব দিয়েছেন ভেড়ামারা পৌর মেয়র শামীমুল ইসলাম ছানা।
guli
মঙ্গলবার জেলা প্রশাসকের কাছে গিয়ে লিখিত জবাব দেন পৌর মেয়র। তিনি বলেন, ‘আমি একটি রাজনৈতিক দলের নেতা। প্রতিপক্ষরা আমাকে বিভিন্ন সময় প্রাণনাশের হুমকি দেয়। গত ইউপি নির্বাচনের পর থেকে আমি চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে আছি।

আগে থেকেই সংবাদ ছিল আমাকে হত্যার উদ্দেশে বিয়ের অনুষ্ঠানে হামলা হতে পারে। সে কারণে বিয়ের অনুষ্ঠানে আনন্দ উদযাপনের নামে গুলি ছুড়েছি। এখানে আতঙ্কের কোনো ঘটনা ঘটেনি। গুলি ছোড়ার আগে অনুমতি নিতে হয়, এটি আমার জানা ছিল না। এ ধরনের ভুল আর হবে না।’

প্রশাসনের কাছে শেষবারের মতো ক্ষমা চেয়ে অনুরোধ করেছেন তিনি। ঘটনার পরের দিন তিনি ভেড়ামারা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করেছেন বলে উল্লেখ করেন তিনি।

বিধিবহির্ভুত অস্ত্র ব্যবহার করায় কেন তার অস্ত্রের লাইসেন্স বাতিল করা হবে না জানতে চেয়ে এক সপ্তাহের মধ্যে মেয়রকে শোকজ করেছিলেন কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক জহির রায়হান। এর পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার বিকেলে মেয়র সশরীরে গিয়ে শোকজের লিখিত জবাব দিয়েছেন।

কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুর রহমান জানান, শোকজের জবাব দিয়েছেন ভেড়ামারা পৌর মেয়র শামীমুল ইসলাম ছানা। তিনি হামলার আশঙ্কা ও নিরাপত্তাজনিত কারণে বিয়ের অনুষ্ঠানে গুলি ছুড়েছেন বলে জবাবে উল্লেখ করেছেন।

প্রসঙ্গত, গত ১০ জানুয়ারি ভাতিজির বিয়ের অনুষ্ঠানে শর্টগানের গুলি ছুড়ে দেশব্যাপী সমালোচিত ভেড়ামারা পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীমুল ইসলাম ছানা। গুলি ছোড়ার এ দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেমে ভাইরাল হয়ে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কেউ ট্রেনের টিকিট না পেয়ে ফিরে যাবেন না: রেলমন্ত্রী

Share স্টাফ রিপোর্টার: পর্যাপ্ত টি‌কিট আছে এবার। কেউ না পেয়ে ফিরে যাবেন না। এমনটাই জানিয়েছেন ঈদে ট্রেন যাত্রায় টিকিট সংগ্রহে মানুষের উপচে পড়া ভিড় দেখে রেলমন্ত্রী মু‌জিবুল হক। তি‌নি জানান, কমলাপু‌র রেলস্টেশন থেকে দৈ‌নিক অর্ধলাখ ...

রাজশাহী শহর বিপদমুক্ত নয়

Share পদ্মা: এবারের বানে ভেসে গেছে পদ্মার বুকে জেগে ওঠা চর। চারদিকে শুধু পানি আর পানি। রাজশাহী শহর বিপদমুক্ত নয়, পানি বাড়লে যেকোনো সময় ডুবে যেতে পারে। ভরা পদ্মায় সূর্যাস্ত দেখে মনে হতেই পারে এটি ...